মেনু নির্বাচন করুন

ভেড়ামারা

বাংলাদেশ ইন্ডিয়া ব্যাক টু ব্যাক প্রজেক্ট, উক্ত প্রকল্পটি ভেড়ামারা উপজেলার মোকারিমপুর ইউনিয়নে অবস্থিত।

ভেড়ামারা উপজেলা বাংলাদেশের কুষ্টিয়া জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান ও আয়তন

ভেড়ামারা উপজেলার উত্তর-পূর্বে পদ্মা নদী, পূর্ব-দক্ষিণে মিরপুর উপজেলা, পশ্চিমে দৌলতপুর উপজেলা এবং পূর্বে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা অবস্থিত। ভেড়ামারা ২৪.০১৬৭° উত্তর ও ৮৮.৯৯১৭° পূর্বে অবস্থিত ও আয়তন ১৫৩.৭২ বর্গকিলোমিটার।

ইতিহাস

নামকরণ

ভেড়ামারার নামকরণ নিয়ে তেমন কোন সুস্পষ্ট বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে লোকমুখে প্রচলিত আছে অতীতে ভেড়ামারায় প্রচুর ভেড়া পালন করা হত।

মুক্তিযুদ্ধে

অত্র উপজেলার মৃত্তিকা স্তরে নমুনা বিশ্লেষণ করে দেখা যায় বালি পাতলা ও মোটা মিশানো পলি, কাঁদা, নূড়িও কাঁকড় মিশানো দো’আঁশ মাটি, আর মাত্র কয়েক জায়গায় রয়েছে এঁটেল মাটির প্রলেপ। অত্র উপজেলার মাটি প্রকৃতিগত ভাবে অত্যন্ত উর্বর এবং ফসল উপযোগী।

নদ-নদী

পদ্মা নদী ভেড়ামারা উপজেলার সীমানার উপর দিয়ে বয়ে চলেছে। ভেড়ামারা উপজেলায় ২টি নদী আছে; এগুলো হচ্ছেঃ পদ্মা নদীহিশনা-ঝাঞ্চা নদী[1][2] মূল্যবান বালি এবং পদ্মা নদীর মাছ গুরুত্বপূর্ণ প্রাকৃতিক সম্পদ।

প্রশাসনিক এলাকা

৫৯টি মৌজা ও ৭৪টি গ্রাম নিয়ে গঠিত ভেড়ামারাতে ৬টি ইউনিয়ন রয়েছে; এগুলো হলোঃ

নির্বাচনী এলাকা ও জনপ্রতিনিধি

জনসংখ্যার উপাত্ত

ভেড়ামারা উপজেলার মোট জনসংখ্যা ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৪৮০ জন; এর মধ্যে পুরুষ রয়েছে ৯০ হাজার ৭০০ জন এবং মহিলা রয়েছে ৮৪ হাজার ৭৮০ জন।।

কৃষি

এখানে প্রচুর কৃষিজ ফসল উৎপন্ন হয়। প্রধান ফসলের মধ্যে পাট, তামাক, আখ, ধান,গম উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও ভূট্টা, মটর, মসুর, মাসকালাই, খেসারি,সরিষা ইত্যাদি ফসলও চাষ করা হয়। তাছাড়া এখানে উল্লেখযোগ্য হারে পান চাষ করা হয়।

অর্থনীতি

ভেড়ামারার অর্থনীতি কৃষিভিত্তিক।

শিল্প-প্রতিষ্ঠান

যোগাযোগ ব্যবস্থা

ভেড়ামারা উপজেলা সারাদেশের সাথে সড়কপথের মাধ্যমে এবং ভেড়ামারা রেলওয়ে স্টেশনের মাধ্যমে রেলপথ দিয়ে সংযুক্ত।

কৃতী ব্যক্তিত্ব

দর্শনীয় স্থান হার্ডিঞ্জ ব্রীজ

  • লালন শাহ সেতু
  • তিন গম্বুজ মসজিদঃ উপজেলা ধরমপুর ইউনিয়ন ।
  • গঙ্গা কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্প (জিকে প্রজেক্ট)।
  • ভেড়ামারা বিদ্যুৎ কেন্দ্রঃ
  • ঘোড়েশাহ মাজারঃ
  • সোলেমান শাহ মাজারঃ

 

 


Share with :
Facebook Twitter